Google-Core-Update-2020
Google-Core-Update-2020

গুগল কোর আপডেট কি এবং গুগল এলগরিদম নিয়ে আলোচনা

গুগল কোর আপডেট কি? যারা বিগিনার তাদের মনে প্রায় এই প্রশ্ন জাগে । আজকে আমি এসইও কোর আপডেট বলতে কি বুজায় এবং গুগল এলগরিদম আপডেট হলে ওয়েবসাইট এ কি কি বিষয় আপডেট করতে হবে তা নিয়ে লিখার চেষ্টা করবো। ওহ!! এখনো যারা এসইও কি জানে না তারা আমার এই আর্টিকেল টি পড়তে পারেন ।

গুগল কোর গুগল আপডেট কি যখন তার সার্চ ইঞ্জিন এর অ্যালগরিদম এবং সিস্টেমে উল্লেখযোগ্য এবং বিস্তৃত আকারে পরিবর্তন করে থাকে তখন তাকে গুগল (Google) কোর আপডেট বলা হয়। এই আপডেটগুলির মধ্যে গুগল ব্যবহারকারীদের জন্য অনুসন্ধানের অভিজ্ঞতা আরো কিভাবে অথেন্টিক তথ্য সরবরাহ করা যায়, আরও প্রাসঙ্গিক, দরকারী এবং বিশ্বাসযোগ্য সামগ্রী জন্য নতুন পদ্ধতি বা নিয়ম হচ্ছে এই আপডেট এর মূল কারণ। সাধারণত, কোর আপডেটগুলি বছরে বেশ কয়েকবার ঘটে এবং গুগলের কাছ থেকে নিশ্চিতকরণ একটা আর্টিকেল প্রকাশ করা হয়।

সর্বশেষ গুগল এলগরিদম আপডেট ২০২০ঃ ডিসেম্বর এ গুগল কোর আপডেট অব্যাহত রয়েছে। আর এই কারণে এখনো সার্চ ইঞ্জিনের কি কি কোর আপডেট হয়েছে বা এলগরিদম এর পরিবর্তন ঘটবে তা কেউ এখনো নিশ্চিত ভাবে বলতে পারে নি। যখন ওই গুগল এই ব্যাপারে বিস্তারতি টুইট করবে তা আমি এই আর্টিকেল এ আপডেট করে দিবো। মেজর যেই আপডেটগুলো রয়েছে তা নিম্নে আপনাদের জানার সুবিধার্তে দেওয়া হলঃ

১। পান্ডা(Panda) – এইটা মূলত ডুপ্লিকেট কনটেন্ট, কিওয়ার্ড স্টাফিং, লো কোয়ালিটি কনটেন্ট ও স্প্যাম চেক করে থাকে।
2। পেনগুইন(Penguin)- এইটা মাধ্যমে স্প্যাম ব্যাকলিংক, অতিরিক্ত এনকর টেক্সট আছে কিনা তা চেক করা হয়ে থাকে
৩।হাম্মিংবার্ড(Hummingbird)- ইহা মূলর পান্ডা এর মতই কাজ করে থাকে মানে কিওয়ার্ড স্টাফিং আছে কি না আর লো কোয়ালিটি কনটেন্ট চেক করে।
৪। মোবাইল অপ্টিমাইজ (Mobile) – মোবাইল এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট ইউজার ফ্রেন্ডলি এক্সেস করা যায় কিনা চেক করা হয়ে এর মাধ্যমে।
৫। র‍্যাঙ্কব্রেইন (RankBrain)- ক্যোয়ারী-নির্দিষ্ট প্রাসঙ্গিকতার অভাব, কনটেন্ট এর মধ্যে গভিরতা না থাকা, পুওর ইউএক্স চেক করে থাকে এইটি।
৬। মেডিক (Medic)- ওয়াইএমওয়াইএল ওয়েবসাইটে ঠিকভাবে না থাকা, E-A-T সিগন্যাল এর দূর্ভ্লতা চেক করা ।
৭। বার্ট (Bert)- কনটেন্ট এর মধ্যে সঠিক ভাবে তথ্য না থাকা মানে (poor content writing), ফোকাশ এর অভাই ইত্যাদি যাচাই ক
রা।

অবশ্যই উপরের এলগরিদম ফলো করে একটা সাইট এর এসইও করলে ওয়েবসাইট এর র‍্যাংক গুগল এর ফাস্ট পেজে চলে আসবে।

ওয়েবসাইট এসইও গুগল আপডেট এর ফলে কি পরিবর্তন ঘটে পারেঃ একটি ওয়েবসাইট কোর এসইও বলতে সাইট অপ্টিমাইজ করা, টেকনিক্যাল স্ট্রাকচার ঠিক রাখা, ইউনিক ও কোয়ালিটি কনটেন্ট লেখা এবং অনপেজ-অপফেজ এর কাজ করা কে বুজায় ।

গুগল এলগরিদম আপডেট এর সাথে সাথে অনেক ওয়েবসাইট এর কিওয়ার্ড গুগল পেজের ফাস্ট এ চলে আসে (ভালো র‍্যাংক করে), আবার অনেক ওয়েবসাইট এর র‍্যাংক তলানিতে চলে যায়। তার মূল কারণ হচ্ছে , গুগল নিয়ম অনুযায়ী যেই সব ওয়েবসাইট আপডেট করা হয়েছে তার র‍্যাংক এ ভালো এফেক্ট পড়ে। আবার যেই সকল ওয়েবসাইট গুগল এর এলগরিদম অনু্যায়ী চলে নাই সেই সকল ওয়েবসাইট র‍্যাংক হারায়। তাই যেকোন ওয়েবসাইট তৈরি করা হতে শুরু করে প্রত্যেক টা জিনিস গুগল মামার নিয়ম অনুযায়ী মেইটেইন করা উচিত ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here