Fiverr কী?যেভবে Fiverr থেকে ভালো ইনকাম করা যায়।

ফ্রিল্যান্সিং শব্দ সাথে আমরা সবাই পরিচিত।দিন যত যাচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং চাহিদা ততোই বাড়ছে।

এখন অনেকে পেশা হিসাবে ফ্রিল্যান্সিং বেছে নিচ্ছে অনকের কাছে ফ্রিল্যান্সিং অনকে পছন্দীয়।

আমরা অনেকে ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য গুগলে কিংবা ইউটিউব সাচ দিয়ে থাকি কিভবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায়।

আমরা অনেকে ভালো কিছু ফ্রিল্যান্সিং সাইটের নাম শুনে থাকি যার মধ্যে ‘ফাইভার’ অন্যতম যারা অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং করে তারা ফাইভার সাথে পরিচিত।যা থেকে অনেকে ভালো পরিমান আনিং করে থাকে।

ফাইভার কি?

ফাইভার হলো অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং সাইট যা থেকে একজন মানুষ তার দক্ষতা অনুযারী কাজ করে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারে।

এখনে অনেক ফ্রিল্যান্সিং কাজ করে থাকে যেকোন বায়ার তার কাজ অনুযায়ী ফ্রিল্যান্সিং ফাইভারে পেয়ে থাকে।

ফাইভার একজন বায়ার সবনিম্ন ৫ ডলার দিয়ে তার কাজটি কোন ফ্রিল্যান্সিং মানুষ মাধ্যমে করিয়ে নিতে পারেন।

এখনে শুধু ৫ডালার কাজ নাই আরো অনেক ডলার কাজ আছে যা সে কাজ অনুযায়ী।সবনিম্ন ৫ডলার দিয়ে শুরু বলে এই সাইটের নাম ফাইভার রাখা হয়েছে।

কিভবে কাজ করবেন এখানে?

প্রথমে আপনাকে ফাইভার ওয়েবসাইট অ্যাকাউন্ট করতে হবে।

ফাইভার কাজ করতে হলে আপনাকে প্রথমে ভালো করে গিগ তৈরী করতে হবে যে বিষয়ে আপনার দক্ষতা আছে।

আপনার যদি কোন বিষয়ে দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি এখানে খুব সহজে কাজ করতে পারবেন যেমন:আপনি ভালো লেখতে পারেন সেক্ষেত্রে কন্টেন্ট রাইটিং  কাজ সহজে করতে পারবে,যদি গান তৈরী করতে পারেন তাহলে আপনি মিউজিক প্রডিউসিং কাজ করে ভালো পরিমান আনিং করতে পারবেন।

আপনার যেকোন দক্ষতা থাকুন না কেন আপনি ফাইভার কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন।

ফাইভার মধ্যে জনপ্রিয় কিছু কাজ সেগুলো হলো-

  • কন্টেন্ট রাইটিং
  • গ্রাফিক ডিজাইনিং
  • ভিডিও এডিটিং
  • প্রুফরিডিং
  • ভয়েস-ওভার
  • সফটওয়্যার বা ওয়েব ডেভেপমেন্ট
  • ওয়েবসাইট ডিজাইনিং
  • ওয়েবসাইট ম্যানেজমেন্ট, ইত্যাদি।

ফাইভার এসব কাজের চাহিদা অনেক যা অনেক জনপ্রিয়।

কিভাবে আপনি ভালো গিগ তৈরী করবেন?

ফাইভার ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস এখনে প্রতিযোগীতা অনেক এই প্রতিযোগিতা জন্য আপনাকে ভালো মানের গিগ তৈরী করতে হবে।

অনেক সময় দেখা যায় অনেকে ফাইভার ভালো গিগ তৈরী করতে না পাড়ায় তারা তেমন কাজ পায় না।

ভালো গিগ তৈরী জন্য যা করতে হবে সেগুলো হলোঃ

  • ফাইভার ভালো গিগ জন্য আপনাকে প্রথমে আপনার প্রোফাইল সবকিছু কমপ্লিট করতে হবে।
  • আপনি যে গিগ টি তৈরী করছে তা ক্যাটাগরি ও সব-ক্যাটাগরী ও ট্যাগ ভালোভাবে দিন যাতে বায়ারা আপনাকে আপনার যোগ্যতা অনুযায়ী খুজে পায়।
  • আপনার প্রোফাইলে সকল সোশ্যাল মিডিয়া লিংক যোগ করে দিন যাতে কোন প্রয়োজনে আপনাকে খুজে পায়।
  • আপনার সাথে কাজ করার সুবিধা,কেনো আপনি কাজ জন্য যথাযোগ্য লোক,তা তুলে ধরুন আপনার তৈরী গিগ সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ার করুন।
  • আপনি যে গিগ তৈরী করবেন সে গিগে ছবি বা ভিডিও এড করুন ফলে গ্রাহকেরা আপনার গিগ সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবে।

ফাইভার কিভবে আপনাকে টাকা দিবে?

ফাইভার যখন কোন গ্রাহক আপনার সাভিস নিবে তখন তাকে ডলার পে করতে হবে এই ডলার আপনার জন্য অপেক্ষা থাকবে মানে পেন্ডিং থাকবে।
প্রতি ৪০ ডালার কম মূল্য অডার জন্য ২ডলার ও ৪০ ডালার বা তার বেশি হলে ৫ শতাংশ ফাইভার কেটে নিবে আপনি ৮০% পেয়ে যাবেন।

Fiverr কী যারা নতুন বা ফাইভার সম্পকে ধারণা কম তারা এই আটিকেল মাধ্যমে অনকে কিছু জানতে পারবেন।

ধন্যবাদ কস্ট করে আটিকেল পড়ার জন্য আমাদের প্রযুক্তি৭১ পাশে থাকুন।

Sohan
সময়ের সাথে আপোষ করছি বিনম্র শ্রদ্ধায়, জুড়ছি তাইতো সময়কে নিয়ে অজস্র অধ্যায়!