সার্জিক্যাল মাস্ক সমাচার

প্রথম ছবি সার্জিক্যাল মাস্ক
দ্বিতীয় ছবি পলিথিন!
তৃতীয় ছবি টিস্যু পেপার!

প্রশ্নঃ১
এই ৩ ছবি দেয়ার কারণ কি?
উত্তরঃ
সার্জিজ্যাল মাস্কের ভিতরের দিক সাদা! এটা টিস্যু পেপারের ন্যায়। টিস্যু পেপার এর কাজেই হল শুষে নেয়া বা এ্যাবজর্ব করা।
সার্জিক্যাল মাস্কের ভিতরের সাদা লেয়ারও আপনার নাক বা মুখ থেকে জলীয় বাস্পসহ সমস্ত সিক্রেশন আটকে দেয়! শুষে নেয়। এমনকি আপনার কাছ থেকে বের হওয়া জীবানু আটকে দিকে বাইরে যেতে দেয় না!

সার্জিক্যাল মাস্কের বাহিরের নীল দিক পলিথিনের ন্যায়। পলিথিন কিছু আটকাতে দেয় না!
পানি বা ময়লা লাগা মাত্রই পড়ে যায়…এটা পিচ্ছিল…কিছুই আটকায় না! নন স্টিকি।
সার্জিক্যাল মাস্কের বাইরের দিকও তাই! যাই এসে লাগুক, আটকাতে দেয় না!

প্রশ্নঃ২
তাহলে সার্জিক্যাল মাস্কের কোন অংশ ভিতরে, কোন অংশ বাইরে?
উত্তরঃ
খুব সহজ। নীল অংশ বাইরে, সাদা অংশ ভিতরে!
সব সময় এভাবেই পরতে হবে।

প্রশ্নঃ৩
কত সময় একটা সার্জিক্যাল মাস্ক ব্যাবহার করা যবে?
উত্তরঃ ৬ থেকে ৮ ঘন্টা!

প্রশ্নঃ ৪
সার্জিক্যাল মাস্ক কি ধুয়ে বা অন্যভাবে পরিস্কার করা যাবে!
উত্তরঃ
না। একেবারেই না। এটা ওয়ান টাইম ইউজ। মানে কেবলমাত্র একবারই ব্যাবহারযোগ্য!

প্রশ্নঃ৫
দুইটা পরলে কি লাভ বেশি?

উত্তরঃ
এমন কোন কথা নাই! দুইটার চেয়ে ফিটিং ভাল হওয়া জরুরি।
সার্জিক্যাল মাস্কের উপর একটা কাপড়ের মাস্ক পরে নিলে ফিটিংটা ভাল হয়!

প্রশ্নঃ৬
গরীবের এন ৯৫ মাস্ক কাকে বলে?
উত্তরঃ সার্জিক্যাল মাস্কের উপর একটা কাপড়ের মাস্ক পরে নিলে প্রটেকশন ক্ষমতা প্রায় ৯৫% হয়ে যায়। সেজন্য এটাকেই গরীবের এন ৯৫ মাস্ক বলে।

প্রশ্নঃ৭
আমি গরীব এতো সার্জিক্যাল মাস্ক পামু কই।
উত্তরঃ
অসুবিধা নাই। আপনি ৩ লেয়ারের কাপড়ের মাস্ক পরবেন। এটা ধুয়ে ধুয়ে অনেকদিন পরবেন।

প্রশ্নঃ৮
কাপড়ের মাস্কে লাভ হবে তো?
হবে কিছুটা। সামর্থ থাকলে চাইনিজ বিরানী খাবেন।না থাকলে পান্তা ভাত। জীবন তো চালাতে হবে! তাই না?

প্রশ্নঃ৯
সার্জিক্যাল মাস্ক নিয়ে অনেকে তো অনেক কথা বলে, কোনটা ঠিক?

উত্তরঃ
আমি যা বলেছি এটাই ঠিক জেনে লিখেছি। এর স্বপক্ষে প্রমানও আছে আমার কাছে। বাকী সিদ্ধান্ত আপনার।

কয়েকটি ভুলঃ
১. আপনজন/সহকর্মীদের সামনে মাস্ক খুলে বসে থাকা।
২. কারো সাথে কথা বলার সময় মাস্ক খুলে কথা বলা।
৩. মাস্ক দিয়ে নাক মুখ না ঢেকে থুতনিতে মাস্ক রাখা

নিজেকে সুরক্ষার সর্বোত্তম উপায় মাস্ক…নিজে পরুন…অন্যকে পরতে বলুন…না পরলে প্রতিবাদ করুন!
প্রতিবাদ করে ঝামেলায় পড়লে নিজ দায়িত্বে মিটমাট করুন😜!

লিখেছেন ঃ Dr. Saklayen Russel (ফেসবুক থেকে কালেক্ট করা)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here